Wednesday, April 17, 2024

অনলাইনে ইনকাম 2022, বাংলাদেশে ঘরে বসেই অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়।

অনলাইনে ইনকাম ২০২২।এই শিরোনামে আজকে আমরা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ঘরে বসেই খুব সহজে অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় সে বিষয় গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

আজকাল ফেসবুকে ঢুকলেই বেশির ভাগ প্রশ্ন আসে কিভাবে অনালাইন  থেকে আয় করা যায়? কিভাবে ঘরে বসে খুব সহজেই টাকা আয় করা যায়? অনলাইনে থেকে কিভাবে কাজ পাওয়া যায়? কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়?

আবার অনেকেই বলে ভাই আমি কিভাবে ফ্রিলান্সিং শুরু করবো ? আমি তো নতুন আমি  ফ্রিলান্সিং এর কোন কাজটি আগে শিখবো। কোন কাজের চাহিদা বেশী? কোথায় থেকে কাজ শিখবো ? ফ্রিলান্সিং বা আউটসোর্সিং কি ?ইত্যাদি ইত্যাদি।

তো সবার কথা ভেবে আজকে আমি  ফ্রিলান্সিং বা  অনলাইন থেকে আয় করার উপর একটি পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন দেবার চেষ্টা করবো।

অনলাইনে ইনকাম ২০২২। আর্টিকেলটি খুব সময় নিয়ে ধৈর্য্যসহকারে পড়তে হবে। আর আমি ১০০% গ্যারান্টি দিতে পারি আপনি যদি এই আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েন । তবে ফ্রিলান্সিং নিয়ে আপনার আর কোন প্রশ্ন থাকবে না। আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন আপনার এখন কি করা উচিত, কিভাবে সামনে আগানো উচিত।

অনলাইনে ইনকাম ২০২২ – Online income 2022

এখন দুই হাজার বাইশ । বর্তমানে পৃথীবি এখন প্রযুক্তির উচ্চ শিখরে অবস্থান করছে । পুরো বিশ্ব চলছে এখন প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে । দৈনন্দিন জীবনের একটি ছোট্ট কাজ থেকে শুরু করে বৃহত্তম সকল কাজই চলছে এখন অনলাইনের মাধ্যমে।

কেনা কাটা , লেখাপড়া ,অফিস , মিটিং ,ব্যাবসা বানিজ্য সবকিছুই চলছে এখন অনলাইনের উপর নির্ভর করে। এরমধ্যে আপনি হয়তো শুনেছেন আপনার আশেপাশে অনকেই অনলাইন থেকে ঘরে বসে টাকা আয় করছে। আর আপনি হয়তো নাম শুনেছেন ফ্রিলান্সিং বা আউটসোর্সিং এর ।

আপনি নিশ্চয়ই অনলাইনে ইনকাম করার জন্য আগ্রহী। সবাই চাই ঘরে বসে অনলাইন থেকে খুব সহজেই টাকা ইনকাম করতে।

অনেকে সঠিক গাইডলাইন এর কারনে পারে না আবার কারও ধৈর্য থাকে না। অনলাইন থেকে ইনকাম করতে হলে আপনার প্রয়োজন সঠিক গাইডলাইন এবং প্রচুর ধৈর্য্য। তাহলে  অনলাইন থেকে ভালো একটা টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ফ্রিলান্সিং কি ?

ফ্রিল্যান্সিং

এক কথায় বলতে গেলে ফ্রিলান্সিং মানেই মুক্ত পেশাচাকুরীর বাইরে নিজের ইচ্ছামাফিক কাজ করার স্বাধীনতা হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং

যদিও আমাদের দেশে  এখনও ফ্রিলান্সিং বিষয়টি নতুন, তবে এরই মধ্যে অনেকে ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে নিজেদের ভাগ্যকে সম্পূর্ণরূপে পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়েছেন।

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের একটি বিশাল বড় মার্কেট। পড়ালেখা শেষে বা পড়ালেখার সাথে সাথে ফ্রিল্যান্সিং এ আপনার ভবিষ্যৎ প্রফেশনাল ক্যারিয়ার গড়ে নিতে পারেন।

ইন্টারনেটের কল্যানে এখন আপনি সহজেই ঘরে বসে একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন।

কিভাবে আপনি ঘরে বসে আয় করবেন?

কিভাবে আপনি ঘরে বসে আয় করবেন

অনলাইনে ইনকাম ২০২২ । ২০২২ সালে আপনি কিভাবে ঘরে বসে সহজেই আয় করবেন? এই প্রশ্নটির উত্তর দেবার আগে আমি আপনাকে আরও একটি প্রশ্নের সম্মুখিন করি তাহলো, আপনি কি কি কাজ পারেন ? 

আসলে ভাই  টাকা আয় করতে সবাই চায় কিন্তু সবাই কি টাকা আয় করতে পারে ? পড়ালেখা তো অনেক ছাত্রই করে কিন্তু সবাই কি পাশ করে? অনেকেই তো চাকরির জন্য আপ্রান চেষ্টা করে। কিন্তু সবাই কি চাকুরি পায়? কেন পায় না ?

আমি মনে করি চাকুরি না পাওয়ার প্রধান কারন দুইটি। তার এক নাম্বার কারন হলো, প্রয়োজনীয় দক্ষতা / অভিজ্ঞতার অভাব ।

আপনি যদি ইচ্ছে করেন তো আপনি ঘরে বসেই বিভিন্ন উপায়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু শুধু ইচ্ছে করে বসে থাকলেই কিন্তু ইনকাম হবে না। আপনাকে চেষ্টা করতে হবে এবং ধৈর্য্য ধরে লেগে থাকতে হবে। তবেই আপনি সফলতা পাবেন।

অনলাইনে ইনকাম করার জন্য প্রথমে কোন কাজটি শিখবো? 

অনলাইনে ইনকাম ২০২২। অনেকেই প্রশ্ন করে যে, ভাই আমি তো ফ্রিলান্সিং এ একদমই নতুন । আমি প্রথমে কোন কাজটি শিখে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবো ? অনেকেই বলে ভাই আমার আর্থিক অবস্থা ভালোনা পারিবারিক সমস্যা। 

আমি ছাত্র, আমি পড়ালেখার পাশাপাশি অল্প কিছু হলেও অনলাইনে আয় করতে চাই । আমাকে একটু পরার্মশ দেন।

আমি সে ভাইদের উদ্দেশ্য করে একটি কথায় বলি , আপনি প্রথমে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখুন। বর্তমানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা অনেক বেশি।

বিভিন্ন কম্পানিগুলোতে একজন ডিজিটাল মার্কেটার এর কাজের ক্ষেত্র যে রকমভাবে তৈরি হচ্ছে ঠিক সেভাবে অনলাইন মার্কেটিপ্লেস গুলোতেও ডিজিটাল মার্কেটিং এর ছোট ছোট কাজের জন্য ক্লায়েন্টরা প্রতিদন জব পোষ্ট করে যাচ্ছে।

এই দুটি ক্ষেত্র ছাড়াও নিজের বিজনেসের জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং এর খুঁটিনাটি শেখার প্রয়োজনীয়তা অনেক বেশি। অল্প বাজেটে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সহায়তায় কাস্টমার এনগেইজমেন্ট থেকে শুরু করে পন্য বিক্রয় কার্যক্রম খুব ভালোভাবে সম্পন্ন হচ্ছে।

এখন অনেকেরই মনে প্রশ্ন জাগতে পারে ডিজিটাল মার্কটিং টা আবার কি ? ডিজিটাল মার্কেটিং হল ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে পণ্য বা ব্র্যান্ডের প্রচারকে বোঝায়। ইন্টারনেট ডিজিটাল মার্কেটিং এর সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে যুক্ত। 

ডিজিটাল মার্কেটিং এরও আবার অনেকগুলা ভাগ আছে যেমনঃ

  • সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন  (SEO)
  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং ( SEM )
  • কনটেন্ট রাইটিং
  • ইউটিউব মার্কেটিং
  • টুইটার মার্কেটিং
  • সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং 
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং
  • ইমেইল মার্কেটিং
  • মোবাইল মার্কেটিং
  • ফেসবুক মার্কেটিং
  • ভাইরাল মার্কেটিং
  • গুগল ডিসপ্ল্যে নেটওয়ার্ক

ডিজিটাল মার্কেটিং ছাড়াও ঘরে বসে আরো যেসব উপায়ে ইনকাম করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করবো ।

মোবাইল দিয়ে  অনলাইনে ইনকাম ২০২২ঃ

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ইনকাম

এই মুহূর্তে অবশ্যই আপনার হাতে একটি এনড্রোয়েড মোবাইল ফোন আছে তাই না ? শুধু আপনি কেন এখন ২০২২ সালে প্রায় সকলের হাতে হাতেই স্মার্ট ফোন আছে।

কিন্তু আপনি কি একবার ভেবে দিখেছেন আপনার এই এনড্রোয়েড মোবাইল ব্যাবহার করে খুব সহজেই ঘরে বসে ইনকাম করতে পারেন ! আপনার শখের মোবাইল দিয়ে আপনি আপনার বেকারত্ব দুর করতে পারেন।

আপনি কি ছাত্র? আপনার হাত খরচ প্রয়োজন ? কোন সমস্যা নেই আপনার একটি মোবাইল-ই আপনাকে অর্থিক সমস্যা দূর করতে সহায়তা করবে ! এখন আপনার মনে নিশ্চয়ই প্রশ্ন জেগেছে যে, আমার তো মোবাইল আছে আমি কিভাবে মোবাইল দিয়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবো ?

আমি কি প্রতারিত হব নাকি আয় করতে পারব?

এখন  শুধু সেগুলা মাধ্যম নিয়েই আপনাদের সাথে কথা বলবো। আপনি যদি ধৈর্য্যসহকারে আমার দেখানো পথে কাজ করেন তাহলে মোবাইল দিয়ে ১০০% ইনকাম করতে পারবেন।

এখন আপনাকে খুব সুক্ষভাবে  বিবেচনা করতে হবে যে এত এত অফারের মধ্যে  কোনটি সঠিক আর কোনটি বেঠিক, কোনটি আসলে শিখিয়ে যাচ্ছে আর কোনটি প্রতারক চক্র, আপনি যদি কখনো প্রতারক চক্রের মধ্যে পড়ে যান তাহলে অবশ্যই আপনার কিছু সময়, অর্থ এবং আপনার পরিশ্রম বৃথা যাবে । তো যা হোক আপনার টেনশনের কিছু নেই আমি এখন আপনাকে সুন্দরভাবে বিস্তারিত বুঝিয়ে দিবো ২০২২ সালে কিভাবে আপনি ঘরে বসে অনলাইন থেকে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন ।

ইউটিউব থেকে আয় ২০২২ঃ

ইউটিউব থেকে আয় ২০২২ঘরে বসে অনলাইনে আয় করার সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য ও সহজ উপায় হচ্ছে ইউটিউব। বর্তমানে ইন্টারনেট বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ১০টি ওয়েবসাইটের মধ্যে YouTube হচ্ছে একটি।

প্রতিদিন বিলিয়িন বিলিয়ন মানুষ এই ইউটিউব ব্যাবহার করছেন। আপনার যদি একটি স্মার্ট ফোন থাকে তবে আপনি ইচ্ছে করলেই এখান থেকে কম সময় ব্যয় করে অল্প অভীজ্ঞতা নিয়ে মাসে ভালো মানের টাকা অনলাইনে ইনকাম করতে পারেন।

যে কোন বয়সের লোক এখান থেকে খুবই সহজে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে যেটি করতে হবে- প্রথমে বিভিন্ন ভাল মানের ভিডিও YouTube এ আপলোড করতে হবে। এবং যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেল জনপ্রিয় হবে, প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ আপনার ভিডিও গুলা ভিউ করবে। তখন আপনি ইউটিউবের শর্ত মেনে আপনার চ্যানেলে মনিটাইজেশন চালু করে নেবেন।

আর মনিটাইজেশন যখন চালু হবে তখন আপনার ভিডিওতে বিভিন্ন ধরনের এড শো করবে, কেউ যদি আপনার ভিডিওতে দেখানো এডে ক্লিক করে তবে আপনি টাকা পাবেন।

আমি পিরিচিত অনেকেই দেখেছি যারা শুধু ইউটিউবে কাজ করেই মাসে লাখ টাকা ইনকাম করতেছে। অনলাইনে ইনকাম ২০২২

ইউটিউব থেকে কিভাবে আয় করা যায়?

এতক্ষন তো জানলেন ইউটিউব থেকে ঘরে বসে লাখ লাখ টাকা আয় করা যায়। খুব আগ্রহ জেগেছে ইউটিউবে কাজ করে ইনকাম করার তাই না ? এখন আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে আয় তো করা যায় বুঝলাম কিন্তু কিভাবে আয় করা যায় সেটা তো জানিনা।

কোন চিন্তা নেই আমি তো আছি। আমি আপনাকে বলে দেব আপনি কিভাবে ঘরে বসেই আপনার হাতে থাকা মোবাইল দিয়েই মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করবেন।

প্রথমে আপনি ভেবে দেখুন তো আপনি কোন বিষয়ে একটু ভালো বুঝেন বা পছন্দ করেন। একটু ভাবলেই দেখবেন আপনি আপনার পছন্দের বিষয়টি পেয়ে গেছেন। কারন প্রতিটি মানুষেরই কোন কোন বিষয়ে দক্ষতা আছেই।

যেমন মনে করুন কেউ খেলাধুলা খুব ভালো পারে খেলা ধুলা সমন্ধে তার ভালো জ্ঞান আছে। এখন সে কিন্তু খেলাধুলা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড দিতে পারে।

আপনি যদি ভ্রমন প্রিয় লোক হন এবং ভ্রমন করতে পছন্দ করেন তাহলে বিভিন্ন সুন্দর সুন্দর প্রকৃতিক দৃশ্যগুলো আপনার মোবাইলের ক্যামেরায় ফ্রেমবন্দী করেও এ কাজটি করতে পারেন।

অথবা আপনি যে বিষয় ভালভাবে জানেন সে বিষয়ে বিভিন্ন ভিডিও টেউটরিয়াল তৈরী করেও কাজটি করতে পারেন। সেসব মেয়েরা ভালো রান্না পারেন তারা চাইলে বিভিন্ন রান্নার রেসিপি টিপস ও সাজগোজের করার ভিডিও তৈরি করে নিতে পারেন।

এখন কম দামেই অনেক ভালো রের্কডিং সিস্টেমের মোবাইল পাওয়া যায়। যা দিয়ে আপনি খুব সহজেই ঘরে বসে আপনার কন্ঠ ইউজ করে ক্যামেরার সামনে না গিয়েও বিভিন্নি টিউটরিয়াল বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড দিতে পারেন ।

কিন্তু মনে রাখবেন কারও কোন নকল ভিডিও কপি করে এটি করা যাবে না। এতে করে হিতের বিপরীত হতে পারে। কারন জানেনই তো অবৈধ্য উপায়ে কিছু হাসিল করতে চাইলে আপনি বিপদে পরবেনই। আর পরকালে তো আল্লাহর আজাব আছেই। তা যাই করেন চেষ্টা করবেন হালালভাবে কিছু করার ।

এগুলো অবশ্যই পড়বেন—

ইউটিউব থেকে আয় করতে চাইলে যেসব বিষয় অবশ্যই জরুরীঃ

  • আপনার একটি এনড্রয়েড ফোন বা কম্পিউটার থাকতে  হবে ।
  • ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে।
  • একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকতে হবে ।
  • ইউটিউব চ্যানেলটি তে মনিটাইজেশন চালু করতে হবে ।
  • আপনি যে বিষয়ে ভিডিও বানাবেন সে বিষয়ে খুব স্বচ্ছ ভিডিও ক্যাপচার করতে হবে।
  • ক্যামেরা দিয়ে ক্যাপচার করা ভিডিওগুলা প্রফেশনাল মানের ইডিটিং করতে হবে।
  • ইডিটিং করা  ভিডিওগুলা নিজের চ্যানেলে আপলোড দিতে
  • আপনার চ্যানেলে আপলোড করা ভিডিও  বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে আপনার ভিডিওর ভিউ বাড়াতে হবে।

ব্লগিং করে ইনকাম ২০২২ঃ

ব্লগিং করে ইনকাম

আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটি ব্যাবহার করে ব্লগিং এর মাধ্যমে ঘরে বসে খুব সহজেই অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন। তবে এজন্য আপনাকে একটু কষ্ট করতে হবে এবং যথেষ্ট ধৈর্য্য ধরতে হবে। একটু কষ্ট করলেই আপনিও অনেক ভালো  ইনকাম করতে পারবেন ব্লগিং করে।

কিভাবে ব্লগিং করে আয় করা যায়?

ব্লগিং করে আয় করতে হলে আপনার অবশ্যই একটি ব্লগ সাইট থাকতে হবে। তবে এই ব্লগ সাইট আপনি ফ্রি ও পেইড দুইভাবেই করতে পারেন।

ফ্রিতে ব্লাগ তৈরীর করার জন্য অনেক সাইট আছে তারমধ্যে জনপ্রিয় কিছু সাইট হল, সাইট ডট গুগল ডটকম…. ব্লগার ডট কম ওয়ার্ডপ্রেস ডটকম…আপনি চাইলে ১০ মিনিটেই অনেক ভালোমানের ফ্রি ব্লগ সাইট তৈরী করতে পারবেন।

আবার আপনি যদি চান ১৫শ টাকা খরচ করে আমার পছন্দমত নামে ডোমেইন হোস্টিং কিনে ব্লগিং শুরু করবো তাও করতে পারবেন খুব সহজেই।

আপনি আপনার সাইটে এডসেন্স আবেদন করবেন। এডসেন্স অনুমোদন পেলে আপনার সাইটে এড শো করবে। আর ইউটিউবের এডের মত আপনার সাইটের এডে যদি কেউ ক্লিক করে তবে আপনি টাকা পাবেন।

ব্লগিংএ সফলতা পেতে চাইলে যা অবশ্যই জরুরীঃ

  • আপনার একটি মোবাইল বা কম্পিউটার থাকতে হবে ।
  • ইন্টারনেরট কানেকশন থাকতে হবে।
  • ফ্রি বা পেইড যেকোন ধরনের একটি ওয়েবসাইট থাকতে হবে। 
  • ব্লগে নিয়মিত ইউনিক কনটেন্ট পাবলিশ করতে হবে। 
  • ব্লগে এডসেন্স চালু থাকতে  হবে। 
  • আপনার একটি ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে। 
  • আপনার এডসেন্সে যখন ১০০ ডলার জমা হবে তখন আপনি ব্যাংকের মাধ্যমে আপনার টাকা উঠাতে পারবেন।

আপনার এডসেন্সে যখন ১০০ ডলার জমা হবে তখন আপনি ব্যাংকের মাধ্যমে আপনার টাকা উঠাতে পারবেন।

আর্টিকেল লিখে অনলাইনে আয় ২০২২ঃ

বর্তমানে ফ্রিলান্সিং সেক্টরে এই আর্টিকেল রইটারের জনপ্রিয়তা অনেক বেশি। এখন ভালো আর্টিকেল রাইটার পাওয়াই মুশকিল। বিশেষ করে বাংলাদেশে আর্টিকেল রাইটার তেমন পাওয়ায় যায় না। এই সেক্টরে দক্ষ লোকের খুবই অভাব।

কিন্তু আপনি যদি চেষ্টা করেন আপনি মোবাইল দিয়েই ঘরে বসে আর্টিকেল রাইটিং করে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। প্রফেশনাল মানের রাইটার যদি আপনি হন আপনি অবশ্যই কাজ পাবেন।

আরও পড়ুনঃ

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনলাইনে ইনকাম ২০২২ঃ

আপনি চাইলে ঘরে বসে অনলাইন থেকে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় করতে পারেন লাখ লাখ টাকা। আমার কাছে এফিলিয়েট মার্কেটিং টা বেশ ভালো লাগে। এই কাজে এক্সটা একটা মজা পাই আমি ।

এফিলিয়েট মার্কেটিং কি ? – 

এফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনলাইনে ইনকামঅনলাইনে  অন্যের প্রোডাক্ট বিক্রি করে কমিশন পাওয়ার মাধ্যমে আয় করা কে এফিলিয়েট মার্কেটিং বলে। বুঝতে সমস্যা হচ্ছে ? ওয়েট আমি একটি উদাহরন দিয়ে বিষয়টি ক্লিয়ার করে দিচ্ছি।

ধরুন আমার একটি থ্রি পিসের বিজনেস আছে , এখন আমি আপনাকে বললাম আপনি যদি আমার থ্রি পিস বিক্রি করে দেন । তবে আমি আপনাকে প্রতিটি থ্রি পিসের জন্য একটি নির্দিষ্ট পার্সেন্ট আপনাকে দেব। সেটা হতে পারে ৫% থেকে ৫০% পর্যন্ত ।

যদি একটি থ্রি পিসের দাম ৫০০ টাকা হয়  তাহলে প্রতি থ্রি পিস বিক্রিতে ১০% হিসেবে আপনি পাবেন ৫০ টাকা। এভাবে আপনি যত বেশী বিক্রি করতে পারবেন ততো বেশী ইনকাম করতে পারবেন । আপনি যদি অনলাইনে বেশি টাকা উপার্জন করতে চান এবং যদি পরিশ্রমী আর ধৈর্য্যশীল মানুষ হন, তাহলে এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আনলিমিটেড টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে,  কিভাবে কোন একটি কোম্পানির প্রোডাক্ট নিজের হাতে পাব এবং তা সেল করব?  এ প্রশ্নের  উত্তরটি হলো-  তারা আপনাকে কোন প্রোডাক্ট দেবে না। তারা আপনাকে যা দিবে সেটা হল প্রোডাক্টের একটি নির্দিষ্ট লিংক।

আমার বিসনেসের উদাহরনটা আবার দেই, আপনি যদি আমার থ্রি পিসের এফিলিয়েট মার্কেটিং করেন। তবে আমি আপনাকে কিন্তু সরাসরি আপনার হাতে থ্রি পিস ধরিয়ে দেব না আমি আপনাকে আমার ওয়েবসাইটে আমার থ্রি পিসের লিংকটা আপনাকে দেব। আপনি এই লিংক বিভিন্ন সোস্যাল মিডিয়া বা অনলাইনে যেখানে মানুষ আছে যারা  থ্রি কিনতে পারে এরকম জায়গায় আপনি আমার থেকে পাওয়া থ্রি পিসের লিংকটি শেয়ার করবেন।

আর আপনার শেয়ার করা লিংক থেকে যদি কেই আমার থ্রি পিস কিনে তবেই আপনার লাভ আপনি পেয়ে যাবেন  আপনার নির্দিষ্ট কমিশন । এভাবে যত বেশী মানুষ আপনার লিংক থেকে প্রডাক্ট কিনবে ততো বেশী কমিশন আপনি পাবেন । আশা করি বুঝতে পেরেছেন ।

কিছু জনপ্রিয় এফিলিয়েট প্লাটর্ফম ২০২২ঃ

  • Amazon Associates. (সবচাইতে বেশী পরিচিত)
  • eBay Partners.
  • Shopify Affiliate Program.
  • Click-bank.
  • Awin
  • ShareAsale
  • CJ Affiliate
  • Rakuten Affiliate Network
  • AvanGate ( 2Checkout )
  • LinkConnector
  • RevenueWire

ফেসবুক থেকে আয় ২০২২ঃ

ফেসবুক থেকে আয়

বর্তমানে ফেসবুক তো আমরা সবাই চালাই তাই না ? কত সময় নষ্ট করি ফেসবুকে বন্ধুদের সাথে চ্যাটিং করে ভিডিও দেখে অযথা নিউজফিট স্ক্রল করে। কিন্তু আমরা যদি একটু সচেতন হই একটু কষ্ট করি তাহলে কিন্তু এই ফেসুবক থেকেই ভালোপরিমান টাকা ইনকাম করা যাবে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না? চলুন অলোচনা করি কিভাবে ফেসবুক থেকে ঘরে বসে টাকা ইনকাম করা যায়।

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে আয়ঃ

ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে বা লাইভ করে টাকা ইনকাম করা যায় খুব সহজেই। ফেসবুকের এডব্রেকস সুবিধার মাধমে আপনি আপনার ভিডিও থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবনে।

আপনার অপলোড করা ভিডিওতে ফেসবুক বিভিন্ন কম্পানির এড বসাবে আর সেই এডে যদি কেউ ক্লিক করে তবে আপনি সেই অ্যাড থেকে আয়ের কিছু অংশ পাবেন। তবে এডব্রেকস সুবিধা পেতে আপনাকে কিছু শর্ত পুরুন করতে হবে।

যেমনঃ

  • হাজার ফলোয়ার থাকতে হবে।
  • শেষ ৬০ দিনে ১,৮০,০০০ মিনিট ভিউ হতে হবে এবং ৩০,০০০ মিনিট ভিউ হতে হবে ৩ মিনিটের বেশী ভিডিওতে।
  • শেষ ৬০ দিনে ১৫,০০০ হাজার মানুষের নিকট আপনার পোস্ট পৌছাতে হবে।
  • লাইভ করে টাকা ইনকাম করতে চাইলে সে শর্ত সেটা হলোঃ
  • ১ ভিডিও চার মিনিটের হতে হবে।
  • ৩০০ জন মানুষ দেখতে হবে ।

এই শর্তগুলি পুরন হলেই আপনি এডব্রেকস সুবিধার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আমার শেষ কথা…

এই ছিল আজকে অনলাইনে ইনকাম 2022, বাংলাদেশে ঘরে বসেই অনলাইনে আয় করার উপায় নিয়ে লেখা। আশা করি এই আইডিয়াগুলো আপনাদের ভাল লেগেছে। আপনাদের যদি কোন রকম প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন।

Businesses BDhttps://www.businesslinear.com/
Lorem ipsum is a placeholder text commonly used to demonstrate the visual form of a document or a typeface without relying on meaningful content

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles